মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১২ নভেম্বর ২০১৮

দক্ষিণ এশিয়া প্রকিউরমেন্ট ইনোভেশন অ্যাওয়ার্ডের জন্য এন্ট্রি আহ্বান


প্রকাশন তারিখ : 2018-11-12

দক্ষিণ এশিয়া প্রকিউরমেন্ট ইনোভেশন অ্যাওয়ার্ডের জন্য এন্ট্রি আহ্বান

অন্যান্য বছরের মত এবারও দক্ষিণ এশিয়া প্রকিউরমেন্ট ইনোভেশন অ্যাওয়ার্ড ২০১৮ এর জন্য এন্ট্রি আহ্বান করা হয়েছে। দক্ষিণ এশিয়া পাবলিক প্রকিউরমেন্ট নেটওয়ার্ক (এসএপিপিএন), বিশ্বব্যাংক ও প্রকিউরমেন্ট আই নেট যৌথভাবে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে এ অ্যাওয়ার্ডের আয়োজন করেছে।

অ্যাওয়ার্ডের জন্য এন্ট্রি পাঠানোর শেষ তারিখ ৩১ জানুয়ারি ২০১৯। অ্যাওয়ার্ড ঘোষণা করা হবে ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯। বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে অ্যাওয়ার্ডের জন্য এন্ট্রি পাঠানোর বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য http://procurement.org/sapia ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়েছে।

দক্ষিণ এশিয়ার সার্কভুক্ত ৮টি দেশের যেসব সরকারি সংস্থাসমূহ, বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা গবেষণা ও প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান সরকারি ক্রয় নিয়ন্ত্রণ কাঠামো অনুসরণ করে এবং যেসব এনজিও/কম্যুনিটি ভিত্তিক সংস্থা সরকারি ক্রয় ব্যবস্থাপনা, সচেতনতা, যোগাযোগ ও পর্যবেক্ষণে যুক্ত আছে তেমন প্রতিষ্ঠান এই অ্যাওয়ার্ডের জন্য কেস স্টোরি পাঠাতে পারবে।

এধরণের অ্যাওয়ার্ড প্রদানের উদ্দেশ্য হলো দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে যে সব উদ্ভাবনী ক্রয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে সেসব বিষয়ে অভিজ্ঞতা বিনিময় ও জ্ঞান বৃদ্ধি করা।

এসএপিপিএন শক্তিশালীকরণে বাংলাদেশ সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছে। সিপিটিইউ’র আয়োজনে এসএপিপিএন-এর আঞ্চলিক সম্মেলন ২০১৫ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। সিপিটিইউ’র মহাপরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব মো. ফারুক হোসেন ২০১৬ সালে এসএপিপিএন এর চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন।

২০১৭ সালে বাংলাদেশের সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর ই-জিপি ব্যবহার শীর্ষক কেস স্টোরির জন্য দক্ষিণ এশিয়া প্রকিউরমেন্ট ইনোভেশন অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে। ২০১৬ সালে ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের বিআইজিডি সরকারি ক্রয়ে নাগরিক সম্পৃক্ততা শীর্ষক কেস স্টোরির জন্য অ্যাওয়ার্ড লাভ করেছে।

অ্যাওয়ার্ড অর্জনকারীদেরকে এসএপিপিএন এর সম্মেলনে আমন্ত্রণ জানানো হয় এবং সেখানে তা হস্তান্তর করা হয়। পরবর্তী সম্মেলন ২০১৯ এর এপ্রিলে ভূটানের রাজধানী থিম্পুতে অনুষ্ঠিত হবে।

 


Share with :

Facebook Facebook